দুবাই কোম্পানি ভিসা বেতন কত ২০২৪

দুবাই কোম্পানি ভিসা বেতন কত, বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে অনেকে আছে যারা দুবাই যাচ্ছে। বাংলাদেশের বেশিরভাগ মানুষই দুবাই কোম্পানির ভিসাতে যায়। বাংলাদেশ থেকে যারা কোম্পানির ভিসাতে দুবাই যায় তারা বিভিন্ন রকম সুযোগ সুবিধা পেয়ে থাকে এই জন্য বাংলাদেশিরা দুবাই কোম্পানির ভিসাতে যায়। কিন্তু অনেক বাংলাদেশী জানে না কোম্পানির ভিসাতে কি রকম কাজ এবং কি রকম বেতন হয়। তাই আজকের এই আর্টিকেল মাধ্যমে আপনাদের সবাইকে জানানোর চেষ্টা করবো দুবাই কোম্পানি ভিসা বেতন কত টাকা এবং কোন কোন কোম্পানিতে কি রকম বেতন।

দুবাই কোম্পানি ভিসা

আপনারা যারা বাংলাদেশ থেকে দুবাই কোম্পানির ভিসাতে যাবেন তাদেরকে আগে জানতে হবে দুবাইতে কোম্পানির ভিসায় কোন কোন কাজ রয়েছে। দুবাইতে আপনারা যারা কোম্পানির ভিসায় যাবেন তাদের জন্য বিভিন্ন রকম কাজ রয়েছে এবং বিভিন্ন রকম ভিসাতে বিভিন্ন রকম বেতনের নির্ধারিত আছে। আপনারা যারা বাংলাদেশ থেকে দুবাই যাচ্ছেন তারা হয়তো জানেন না কোম্পানির ভিসাতে কি কি কাজ? আপনারা নিম্নলিখিত লিস্ট থেকে দেখে নিন দুবাই কোম্পানির ভিসাতে কি কি কাজ রয়েছে।

  • হোটেল বয় ভিসা।
  • প্লাম্বিং ভিসা।
  • কনস্ট্রাকশন ভিসা।
  • ইলেকট্রিশিয়ান ভিসা।
  • ড্রাইভিং ভিসা।

দুবাই কোম্পানি ভিসা বেতন কত

আপনারা যারা জানতে চান দুবাই কোম্পানি ভিসা বেতন কত সাধারণত দুবাই কোম্পানিতে কাজের উপর নির্ভর করে আপনার বেতন কত টাকা হবে। দুবাইতে বিভিন্ন রকম কোম্পানির কাজ রয়েছে যেমন ড্রাইভিং প্লাম্বিং আরো অনেক রকম কাজ রয়েছে এই কাজগুলোর বেতন ও বিভিন্ন রকম। বাংলাদেশ থেকে বর্তমানে প্রচুর পরিমান মানুষ দুবাই যাচ্ছে কোম্পানির ভিসাতে।  কিন্তু তাদের জানা নেই দুবাই কোম্পানি ভিসা বেতন কত টাকা পাওয়া যাবে। এই পোষ্টের মাধ্যমে জেনে নিতে পারবেন দুবাই কোম্পানি ভিসা বেতন কত টাকা সেই সম্পর্কে। তাহলে আর দেরি না করে দুবাই কোম্পানি ভিসা বেতন কত টাকা সেই বিষয়ে জেনে নেই।

>হোটেল বয় ভিসাঃ দুবাই কোম্পানি ভিসায় হোটেল বয়ের বেতন হচ্ছে বাংলাদেশি টাকায় ৩০ হাজার টাকা থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত। 

>প্লাম্বিং ভিসাঃ দুবাই কোম্পানি ভিসায় প্লাম্বিংয়ের বেতন হচ্ছে বাংলাদেশি টাকায় ৫০ হাজার টাকা থেকে ৮০ হাজার টাকা পর্যন্ত।

>কনস্ট্রাকশন ভিসাঃ দুবাই কোম্পানি ভিসায় কনস্ট্রাকশনের বেতন হচ্ছে বাংলাদেশি টাকায় ৩৫ হাজার টাকা থেকে ৪৫ হাজার টাকা পর্যন্ত। 

>ইলেকট্রিশিয়ান ভিসাঃ দুবাই কোম্পানি ভিসায় ইলেকট্রিশিয়ানের বেতন হচ্ছে বাংলাদেশি টাকায় ৪০ হাজার টাকা থেকে ৬০ হাজার টাকা পর্যন্ত। 

>ড্রাইভিং ভিসাঃ দুবাই কোম্পানি ভিসায় ড্রাইভিংয়ের বেতন হচ্ছে বাংলাদেশি টাকায় ৪৫ হাজার টাকা থেকে ৬০ হাজার টাকা পর্যন্ত।

আরও পড়ুনঃ বাংলাদেশ টু দুবাই বিমান ভাড়া কত

দুবাই সর্বনিম্ন বেতন কত

বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে অনেকেই প্রবাসের উদ্দেশ্যে দুবাই কোম্পানি ভিসাতে যেতে চায়। কারণ দুবাইতে কোম্পানির ভিসাতে গেলে বিভিন্ন রকম সুযোগ সুবিধা পাওয়া যায়। কিন্তু তারা জানে না দুবাই কোম্পানির ভিসা সর্বনিম্ন বেতন কত টাকা। তাই আপনারা এই লেখার মাধ্যমে জেনে নিতে পারেন দুবাই সর্বোচ্চ বেতন এবং সর্বনিম্ন বেতন কত টাকা সেই সম্পর্কে।

সর্বনিম্ন বেতনঃ দুবাই একজন শ্রমিকের সর্বনিম্ন বেতন ৩০ হাজার টাকা থেকে ৪০ হাজার টাকা পর্যন্ত।

সর্বোচ্চ বেতনঃ দুবাই একজন শ্রমিকের সর্বোচ্চ বেতন ৫০ হাজার টাকা থেকে ৮০ হাজার টাকা পর্যন্ত।

সর্বশেষ কথাঃ

এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনাদের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করছি দুবাই কোম্পানি ভিসা বেতন কত টাকা এবং দুবাই কোম্পানির ভিসার সর্বোচ্চ এবং সর্বনিম্ন বেতন কত টাকা সেই সম্পর্কে। আশা করি আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনারা জানতে পেরেছেন দুবাই কোম্পানি ভিসা বেতন কত টাকা। এইরকম আরও তথ্য পেতে হলে অবশ্যই আমার এই ওয়েবসাইটের সঙ্গেই থাকুন আমি আপনাদের জন্য নতুন নতুন তথ্য তুলে ধরবো।

Leave a Comment