মিশর যেতে কত টাকা লাগে বিস্তারিত সকল তথ্য ২০২৪

মিশর যেতে কত টাকা লাগে বিস্তারিত সকল তথ্য ২০২৪, আপনারা জানেন যে পিরামিডের দেশ হচ্ছে মিশর। বাংলাদেশ থেকে প্রতি বছর প্রচুর পরিমাণ টুরিস্ট ভ্রমণের উদ্দেশ্যে মিশরে যেয়ে থাকে। আবার বর্তমানে অনেকেই আছেন যারা মিশরে কাজের উদ্দেশ্যে যাচ্ছে। তাই আপনি টুরিস্ট বা কাজের উদ্দেশ্যে মিশর যান না কেনো আপনাকে অবশ্যই জানতে হবে মিশর যেতে কত টাকা লাগে তার বিস্তারিত সকল তথ্য

আপনি যদি মিশর যেতে কত টাকা লাগে এই তথ্য না জানেন তাহলে মিশর যেতে আপনি বিভিন্ন এজেন্সি অথবা দালানের কাছে প্রতারিত হবেন। তাই আপনি জানি প্রতারিত না হোন তার জন্য অবশ্যই আপনাকে সর্বপ্রথম জানতে হবে মিশর যেতে কত টাকা লাগে। আজকের এই গুরুত্বপূর্ণ পোস্ট যদি আপনি সম্পূর্ণ পড়েন তাহলে আপনি খুব সহজেই মিশর যেতে কত টাকা লাগে এবং মিশর কাজের ভিসায় কত টাকা লাগে ও ভিসা টুরিস্ট ভিসা কত টাকা খরচ হয় এই বিষয় সহ আরো জানতে পারবেন ঢাকা টু মিশর বিমান ভাড়া কত তার বিস্তারিত সকল তথ্য। তাহলে আর দেরি না করে চলে না আজকের এই গুরুত্বপূর্ণ সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ি।

মিশর যেতে কত টাকা লাগে

বাংলাদেশ থেকে প্রতি বছর হাজার হাজার বাংলাদেশী টুরিস্ট ভিসা নিয়ে মিশর যেয়ে থাকে। আপনারা জানেন যে মিশরে রয়েছে পিরামিড যা পৃথিবীর অন্যতম দর্শনীয় স্থান। তাই প্রতিবছর বাংলাদেশ থেকে প্রচুর পরিমাণ টুরিস্ট মিশরে যেয়ে থাকে। কিন্তু আমরা জানি না মিশরে যেতে কত টাকা লাগে। আপনি যদি জানতে চান মিশরে যেতে কত টাকা লাগে তাহলে আপনাকে সর্বপ্রথম জানতে হবে বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে মিশর কোন কোন ভিসার মাধ্যমে যাওয়া যায়। বর্তমানে বাংলাদেশীদের জন্য মিশর সরকার শুধুমাত্র ওয়ার্ক পারমিট ভিসা এবং টুরিস্ট ভিসা চালু রেখেছে তাই আপনারা চাইলেই ওয়ার্ক পারমিট ভিসা এবং টুরিস্ট ভিসা নিয়ে মিশরে যেতে পারবেন। তাই মিশর যেতে কত টাকা লাগে তার বিস্তারিত তথ্য আপনি পেয়ে যাবেন মিশোর কাজের ভিসা এবং মিশর টুরিস্ট ভিসা এর আলোচনায়।

মিশর কাজের ভিসা

আপনারা জানেন যে প্রতিবছর বাংলাদেশ থেকে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কাজের উদ্দেশ্যে প্রবাসে যায়। বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে মিশরে যাওয়া যায় কাজের উদ্দেশ্য কিন্তু বাংলাদেশ থেকে খুব বেশি পরিমাণ মিশরে কাজের উদ্দেশ্যে যায় না। বেশিরভাগ লোক বাংলাদেশ থেকে মিশরে যায় ব্যবসা-বাণিজ্য এবং টুরিস্ট বা বেড়ানোর জন্য। বর্তমানে বাংলাদেশের অনেকেই জানতে চায় মিশর কাজের ভিসা নিয়ে যেতে কত টাকা খরচ হয়। আপনি যদি বাংলাদেশের স্বনামধন্য কোন এজেন্সির মাধ্যমে মিশর যেতে চান তাহলে আপনার খরচ পড়বে ৪ লক্ষ টাকা থেকে ৫ লক্ষ টাকা। আর আপনি যদি দালালের মাধ্যমে মিশর যেতে চান তাহলে খরচ পড়বে ৫ লক্ষ টাকা থেকে ৬ লক্ষ টাকা। অর্থাৎ মিশর যেতে খরচ পড়বে ৪ লক্ষ টাকা থেকে ৬ লক্ষ টাকা।

মিশর টুরিস্ট ভিসা

পিরামিডের দেশ হচ্ছে মিশর তাই প্রতিবছর বাংলাদেশ থেকে প্রচুর পরিমাণ পর্যটক মিশরের পিরামিড দেখতে যায়। কারণ পৃথিবীর আশ্চর্য জিনিস হচ্ছে পিরামিড তাই বাংলাদেশ থেকে যে সকল পর্যটক টুরিস্ট ভিসা নিয়ে মিশর যেতে চায় তারা কিন্তু অনেকেই জানেনা মিশর যেতে কত টাকা লাগে। আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে টুরিস্ট ভিসা মিশরে যেতে চান তাহলে আপনার খুব বেশি খরচ হবে না। কারণ মিশর সরকার বাংলাদেশীদের জন্য টুরিস্ট ভিসার দাম অনেক কম রেখেছে। আপনি যদি মিশরে টুরিস্ট ভিসা করতে চান তাহলে আপনাকে ৪ হাজার থেকে ৫ হাজার টাকা ভিসা ফ্রি দিতে হবে। অর্থাৎ বিমান ভাড়া সহ আপনার যেতে এবং আসতে খরচ হবে ১ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা।

ঢাকা টু মিশর বিমান ভাড়া

আপনারা যারা কাজের উদ্দেশ্যে বা বেড়ানোর উদ্দেশ্যে ঢাকা টু মিশর যেতে চান তারা অনেকেই জানতে চান ঢাকা টু মিশর বিমান ভাড়া কত। বর্তমানে ঢাকা থেকে মিশরের উদ্দেশ্যে বেশ কয়েকটি এয়ারলাইন্স কোম্পানির বিমান চলাচল করে। এর মধ্যে শুধুমাত্র আপনি গালফ এয়ার এয়ারলাইন্স এর মাধ্যমে মাত্র ৪৮ হাজার টাকা বিমান ভাড়া ঢাকা টু মিশর যেতে পারবেন। অন্যান্য এয়ারলাইন্স কোম্পানিতে ৫০ হাজার টাকা থেকে শুরু করে ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিমান ভাড়া রয়েছে। অর্থাৎ ঢাকা টু মিশরের সর্বনিম্ন বিমান ভাড়া হচ্ছে ৪৮ হাজার টাকা এবং সর্বোচ্চ বিমান ভাড়া হচ্ছে ২ লক্ষ টাকা।

আরও পড়ুনঃ দুবাই যেতে কত টাকা লাগে

বাংলাদেশ থেকে মিশর কত কিলোমিটার

আপনারা যারা বাংলাদেশ থেকে মিশর টুরিস্ট ভিসা বা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে যেতে চান তারা অনেকেই কিন্তু জানেন না বাংলাদেশ থেকে মিশরের দূরত্ব কত কিলোমিটার। না জানার কারণে বিভিন্ন সময়ে google বা অন্যান্য মাধ্যমে আপনারা সার্চ করে থাকেন বাংলাদেশ থেকে মিশর কত কিলোমিটার। বর্তমান গুগলের আপডেট অনুযায়ী বাংলাদেশ থেকে মিশরের দূরত্ব হচ্ছে ৫৯৪১ কিলোমিটার।

বাংলাদেশ থেকে মিশর যেতে কত সময় লাগে

আপনারা জানেন যে বাংলাদেশ থেকে শুধুমাত্র বিমানের মাধ্যমে মিশর যাওয়া যায়। এবং বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে বেশ কয়েকটি এয়ারলাইন্স কোম্পানির বিমান ঢাকা টু মিশর চলাচল করে। যে সকল বিমান শুধুমাত্র বাংলাদেশ থেকে দুবাই অথবা কাতার স্টপিস দিয়ে থাকে সেই সকল বিমানে সময় লাগে মাত্র ১২ ঘন্টা থেকে ১৪ ঘন্টা। কিন্তু যে সকল এয়ারলাইন্স কোম্পানির বিমান দুবাই এবং সৌদি আরব স্টপেজ দিয়ে থাকে সেই সকল বিমানের সময় লাগে ১৮ ঘন্টা থেকে ২২ ঘন্টা। আশা করি আপনারা জানতে পেরেছেন বাংলাদেশ থেকে মিশর যেতে কত সময় লাগে।

সর্বশেষ কথা

আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা জানতে পারলাম মিশর যেতে কত টাকা লাগে বিস্তারিত সকল তথ্য। আমরা আরও জানতে পেরেছি ঢাকা টু মিশরের বিমান ভাড়া কত এবং বাংলাদেশ থেকে মিশর কত কিলোমিটার দূরত্ব তার তথ্য। আশা করি আজকের এই পোস্টটি আপনারা সম্পূর্ণ পড়েছেন এবং এই পোস্টটি যদি আপনাদের পড়ে ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনারা শেয়ার করবেন।

Leave a Comment