সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি এবং সর্বনিম্ন বেতন কত ২০২৪

Rate this post

সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি এবং সর্বনিম্ন বেতন কত, উন্নত জীবনযাত্রার মান এবং বেকার সমস্যার সমাধানের জন্য বাংলাদেশে থেকে সবচাইতে বেশি মানুষ সৌদি আরবে কাজের উদ্দেশ্যে যেয়ে থাকে। প্রতি বছর বাংলাদেশ থেকে ৪ থেকে ৫ লক্ষ লোক সৌদি আরবের বিভিন্ন কোম্পানিতে নিয়োগ দিয়ে থাকে। বাংলাদেশ থেকে বেশিরভাগ মানুষ সৌদি আরবের কোম্পানির ভিসা বা ক্লিনার ভিসাতে যেয়ে থাকে।

কিন্তু বাংলাদেশী অনেকেই জানেন না সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি? তাই কোন কাজের বেতন বেশি এই বিষয়ে জানার জন্য আপনারা ইন্টারনেটে অনুসন্ধান করে থাকেন। তাই আপনাদের সুবিধার্থে আমার এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনাদের জানিয়ে দিব সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি।

সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি

আপনারা ইতিমধ্যে জেনে গেছেন যে বাংলাদেশ থেকে প্রতি বছর ০৪ থেকে ০৫ লক্ষ লোক সৌদি আরবে কর্মসংস্থানের উদ্দেশ্যে যেয়ে থাকে। বাংলাদেশে বেকার সমস্যার কারণে জীবনযাত্রার মান উন্নত করার জন্য সৌদি আরবে প্রবাসের উদ্দেশ্যে পাড়ি জমায়। বর্তমানে সৌদি আরবে অনেক রকম কাজ রয়েছে তার মধ্যে কিছু কিছু কাজ আছে যে কাজগুলোর চাহিদা সৌদি আরবে অনেক বেশি।

তাই যে সকল কাজের চাহিদা বেশি ওই সকল কাজের বেতনও বেশি হয়ে থাকে। অনেক বাংলাদেশী জানেন না সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি? সৌদি আরবের বর্তমানে যে কাজের চাহিদা বেশি সেই সকল কাজের লিস্ট নিচে উল্লেখ করা হলো।

  • ইলেকট্রিক্যাল কাজ।
  • কনস্ট্রেশনের কাজ।
  • অটোমোবাইলের কাজ।
  • রাজমিস্ত্রির কাজ।
  • ক্লিনারের কাজ।
  • কার্পেন্টারের কাজ।
  • পাইপ ফিটিং এর কাজ।
  • দোকানের সেলসম্যানের কাজ।

সৌদি আরবে বেতন কত

সৌদি আরবের বেতন কত এই সম্পর্কে কথা বলতে গেলে আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতা বেশি গত অভিজ্ঞতা কাজের ধরন এবং প্রতিষ্ঠানের ধরন অনুযায়ী ভিন্ন ভিন্ন হতে পারে। সৌদি আরবের বিভিন্ন কোম্পানিতে বেতন সাধারণত সৌদি রিয়ালে দিয়ে থাকে। এছাড়া বিভিন্ন সময় সরকারি এবং বেসরকারি সেক্টরের বেতনের তথ্য দেওয়া থাকে সেই তথ্যের সাথে পরিবর্তন হতে পারে। কোন সেক্টরে কিরকম বেতন হতে পারে সেই বিষয়ে নিচে একটি ধারণা দেওয়া হলো।

  • ইঞ্জিনিয়ার (Engineer): তোমাদের সৌদি আরব ইঞ্জিনিয়ারদের মাসিক বেতন হচ্ছে ৫০০০ থেকে ১০০০০ হাজার রিয়াল পর্যন্ত।
  • হেলথকেয়ার পেশাগত (Healthcare Professional): বর্তমানে সৌদি আরবের ডাক্তার, নার্স, ফার্মেসিস্ট,  পেশায় যারা যুক্ত আছেন তাদের বেতন ৬০০০ থেকে ১২০০০ রিয়াল পর্যন্ত হয়ে থাকে।
  • পেট্রোলিয়াম উদ্যোক্তা (Oil Industry Worker): সৌদি আরবে বিভিন্ন পেট্রোলিয়াম কোম্পানিতে যে সকল ওয়ার্কাররা কাজ করে তাদের সাধারণত বেতন হয়ে থাকে ৩০০০ থেকে ৮০০০ রিয়াল পর্যন্ত।
  • ইলেকট্রিশিয়ানঃ বর্তমানে সৌদি আরবের একজন ইলেকট্রিশিয়ান এর বেতন হচ্ছে ২০০০  রিয়াল থেকে ৫০০০ রিয়াল পর্যন্ত।
  • অটোমোবাইল বা গাড়ির মেকারঃ বর্তমানে সৌদি আরবে অটোমোবাইলের কাজের একজন কর্মীর বেতন ৩০০০ থেকে ৭ হাজার রিয়াল পর্যন্ত।

সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন কত

বর্তমানে সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন কত এই বিষয়ে জানতে হলে অবশ্যই আমার এই পুরো আর্টিকেলটি পড়তে হবে। এই পুরো আর্টিকেল এর মাধ্যমে আপনারা জানতে পারবেন সৌদি আরবে কোন কাজে বেতন কত টাকা। সৌদি আরবে একটি কোম্পানিতে মধ্যম স্তরের ব্যবস্থাপকেরা বছরের সবচাইতে বেশি বেতন পেয়ে থাকে এর পরে সবচাইতে বেশি বেতন পায় অফিসের ম্যানেজার এবং সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং কাজের সম্পৃক্ত তারাই। এই কাজের বাইরেও আরো কিছু কাজ আছে যে কাজগুলোতে সৌদি আরবে বেতন বেশি। নিচে আপনাদের জানাবো আমেরিকান ডলার এক বছরে কোন কাজে কত টাকা বেতন পেয়ে থাকে।

  • অফিস ব্যবস্থাপক = সৌদি আরবে এই কাজে যারা কর্মরত আছে তারা বছরে প্রায় ৮০ হাজার ডলার বেতন পেয়ে থাকে।
  • গ্রাহক সেবা = সৌদি আরবে এই কাজে যারা কর্ম তো আছে তারা বছরে প্রায় ৩৫ হাজার ডলার পেয়ে থাকে।
  • সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং = সৌদি আরবের সবচাইতে বেশি চাহিদা সম্পন্ন কাজ হচ্ছে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং তাই এই কাজে যারা কর্মরত আছে তারা বছরে ৩৫ হাজার ডলার বেতন পেয়ে থাকে।
  • অফিস ম্যানেজার = সৌদি আরবে যারা এই কাজে কর্মরত আছে তারা বছরে প্রায় ৩২ হাজার ডলার বেতন পেয়ে থাকে।
  • মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার = যে সকল ব্যক্তি মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এ কর্মরত আছে তারা বাৎসরিক প্রায় ৩০ হাজার ডলার বেতন পেয়ে থাকে।
  • হিসাব রক্ষক = সৌদি আরবে যারা এই পদে কর্মরতা আছে তারা বাৎসরিক প্রায় ২০ হাজার ডলার বেতন পেয়ে থাকে।

সৌদি আরবে সর্বনিম্ন বেতন কত

সৌদি আরবের সর্বনিম্ন বেতন কত টাকা হয়ে থাকে আপনি যদি উপরের সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই খুব সহজেই জানতে পেরেছেন সৌদি আরবে সর্বনিম্ন বেতন কত টাকা। সৌদি আরবে সর্বনিম্ন বেতন কত টাকা তা নির্ভর করবে আপনি কোন কাজের উপরে বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরব যাবেন। কারন সৌদি আরবে কাজের উপর নির্ভর করে সর্বনিম্ন বেতন কত টাকা।

আরও পড়ুনঃ সৌদি আরবে ড্রাইভিং লাইসেন্স করতে কি কি লাগে

শেষ কথাঃ

আপনারা যারা ইন্টারনেটে সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি সেই সম্পর্কে জানতে চেয়েছিলেন আশা করি আমার এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনারা সকল তথ্য পেয়ে গেছেন। এরপরও যদি আপনাদের কোন প্রকার প্রশ্ন থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই আমাকে কমেন্টে জানাবেন আমি সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো আপনাদের কমেন্টের উত্তর দেওয়ার জন্য। এরকম আরো তথ্য পেতে অবশ্যই আমার ওয়েবসাইটের সঙ্গেই থাকুন।

সৌদি আরবে ইলেকট্রিক কাজের বেতন কত?

যোগ্যতা: একজন বিএসসি ইন ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এর মাসিক বেতন হচ্ছে সৌদি আরবের ৫ থেকে ৬ হাজার রিয়াল পর্যন্ত। যা বাংলাদেশী টাকায় ১ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা থেকে ১ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা পর্যন্ত।

Leave a Comment