ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রাম ট্রেনের সময়সূচী এবং ভাড়ার তালিকা ২০২৪

Rate this post

ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রাম ট্রেনের সময়সূচী এবং ভাড়ার তালিকা, যে সকল সম্মানিত যাত্রীগণ ময়মনসিং থেকে চট্টগ্রাম ট্রেনে যাতায়াত করেন তারা সঠিক ওয়েবসাইটে এসেছেন। আজকের আমার এই আর্টিকেলে আপনাদের সামনে উপস্থাপন করব ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রাম ট্রেনের সময়সূচী এবং ভাড়ার তালিকা।

ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রামের ট্রেন লাইনে দূরত্ব প্রায় ৩৮২ কিলোমিটার। এই দূরত্বের ফলে বর্তমান সময়ে অধিকাংশ যাত্রী ট্রেনে ভ্রমণ করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে। ট্রেনে ভ্রমনে কোন প্রকার ঝুঁকি নেই এবং আরামদায়ক।

ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রাম পর্যন্ত ট্রেন ভ্রমণের প্রতিদিন হাজার হাজার যাত্রী যাতায়াত করে। বিভিন্ন সময় দেখা যায় সঠিক সময়সূচি এবং ভাড়া তালিকা না থাকার কারণে বিভিন্ন প্রকার সমস্যার সম্মুখীন হন।

তাই পরবর্তীতে এই সঠিক তথ্য গুলো খোঁজ করেন বা খোঁজার চেষ্টা করেন কিন্তু দেখা যায় যে পরবর্তীতে এই সঠিক তথ্যগুলো আপনারা খুঁজে পান না। তাই আপনাদের কথা চিন্তা করে আমার এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনাদের জানানোর চেষ্টা করব ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রাম ট্রেনের সময়সূচী এবং ভাড়ার তালিকা।

ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রাম ট্রেনের সময়সূচী

ময়মনসিং থেকে চট্টগ্রাম ট্রেন রোডে একটি আন্তঃনগর এবং একটি মেইল এক্সপ্রেস বর্তমানে চালু রয়েছে। আপনি চাইলে আন্তঃনগর ট্রেন দিয়ে ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রাম যেতে পারবেন এছাড়া আপনি মেইল এক্সপ্রেস দিয়েও ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রামে যাতায়াত করতে পারবো।

বর্তমানে ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রাম রুটে যে আন্তঃনগর ট্রেনটি চলাচল করে সেই ট্রেনটির নাম হচ্ছে বিজয় এক্সপ্রেস। এছাড়া যে মেইল এক্সপ্রেস ট্রেনটি চলাচল করে সেই ট্রেনটির নাম হচ্ছে ময়মনসিং এক্সপ্রেস। আপনারা খুব সহজেই আন্তঃনগর বিজয় এক্সপ্রেস এবং মেইল ট্রেন ময়মনসিং এক্সপ্রেস এর সকল তথ্য নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

বিজয় এক্সপ্রেস 786

ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রাম চলাচলকৃত বিজয় এক্সপ্রেস ট্রেনটি একটি আন্তঃনগর ট্রেন। আপনারা যারা বিজয় এক্সপ্রেস এ রেগুলার চলাচল করেন তারা হয়তো এই ট্রেন সুযোগ-সুবিধা সম্পর্কে ধারণা রাখেন। বিজয় এক্সপ্রেস ট্রেনটি সপ্তাহে একদিন কার্যক্রম বন্ধ রাখে অর্থাৎ বিজয় এক্সপ্রেস ট্রেনটি সপ্তাহে মঙ্গলবারে সাপ্তাহিক বন্ধ থাকে।

বিজয় এক্সপ্রেস ট্রেনটি ময়মনসিংহ রেল স্টেশন থেকে চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন এর উদ্দেশ্যে রাত ০৮ঃ৩০ মিনিটে ছেড়ে যায়। এবং চট্টগ্রাম রেলস্টেশনে পৌঁছানোর নির্ধারিত সময় হচ্ছে ভোর ০৫ঃ৩০ মিনিটে। অর্থাৎ বিজয় এক্সপ্রেস ট্রেনটির দীর্ঘ ৯ ঘণ্টা জার্নি করে ময়মনসিং থেকে চট্টগ্রামে পৌঁছায়।

ময়মনসিংহ এক্সপ্রেস 38

বাংলাদেশ রেল মন্ত্রণালয় যাত্রীদের কম খরচে ময়মনসিং থেকে চট্টগ্রামে যাতায়াতের জন্য একটি মেইল এক্সপ্রেস চালু করেছে সেই মেইল এক্সপ্রেসটির নাম হচ্ছে ময়মনসিংহ এক্সপ্রেস। এই মেইল এক্সপ্রেসটি ময়মনসিং থেকে চট্টগ্রাম যাওয়ার উদ্দেশ্যে প্রায় প্রতিটি রেলস্টেশনে যাত্রা বিরতি দিয়ে থাকে।

ময়মনসিং রেলস্টেশন থেকে চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন এর উদ্দেশ্যে সকাল ৬ঃ৪৫ মিনিটে ট্রেনটি ছেড়ে যায়। এবং রাত ০৯ঃ০৫ মিনিটে গিয়ে চট্টগ্রাম পৌঁছায়। তাই আপনারা যারা ময়মনসিংহ এক্সপ্রেস চলাচল করবেন তারা অবশ্যই হাতে সময় নিয়ে চলাচল করবেন।

ট্রেনের নামছাড়ার সময়পৌঁছানোর সময়ছুটির দিন
বিজয় এক্সপ্রেস08:30 PM05:30 AMমঙ্গলবার
ময়মনসিংহ এক্সপ্রেস06:45 AM09:05 PMনাই

ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রাম ট্রেনের ভাড়া

যে সকল যাত্রীগণ ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রামে যাতায়াত করেন তাদের অবশ্যই ট্রেনের ভাড়া সম্পর্কে অবগত থাকতে হবে। যদি আপনাদের ভাড়া সম্পর্কে কোন প্রকার ধারণা না থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই নিচের লিস্ট অনুযায়ী ভাড়ার তালিকাটি দেখে নিবেন।

আসন বিভাগ টিকিটের মূল্য
শোভন৩২০ টাকা
শোভন চেয়ার৩৮৫ টাকা
প্রথম আসন৮৮৬ টাকা
স্নিগ্ধা৭৩৬ টাকা
এসি ব্যর্থ১৩২৩ টাকা

ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রাম ট্রেনের কেবিন ভাড়া

যে সকল যাত্রীগণ ময়মনসিং থেকে চট্টগ্রাম ট্রেনের কেবিন ভাড়া সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন তাদের জন্য আমার এই পোষ্টের মাধ্যমে কেবিন ভাড়া জানিয়ে দেওয়া হবে। বর্তমানে ময়মনসিং থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ রেল মন্ত্রণালয় কেবিন ভাড়া নির্ধারণ করেছে ১৩২৩ টাকা। তাই আপনারা যারা ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে কেবিনে চলাচল করবেন তাদের ভাড়া পড়বে ১৩২৩ টাকা।

আরও পড়ুনঃ ঢাকা টু চট্টগ্রাম ট্রেনের সময়সূচী এবং ভাড়ার তালিকা

ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রাম কত কিলোমিটার

আপনারা যারা ইন্টারনেটের মাধ্যমে খোঁজ করতেছেন ময়মনসিং থেকে চট্টগ্রাম কত কিলোমিটার তাদের জন্যই আজকের এই পোস্ট।  ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রামে ট্রেন লাইনের দূরত্ব হচ্ছে ৩৮২ কিলোমিটার। তাই এই দীর্ঘ পথ আপনারা যারা চলাচল করবেন তারা অবশ্যই ট্রেনের মাধ্যমে চলাচল করবেন।

সর্বশেষ কথাঃ

প্রতিটা টেন একটি নির্দিষ্ট সময়ে চলাচল করে তাই আপনারা সবাই সময়সূচী অনুযায়ী রেলস্টেশনে এসে উপস্থিত হবেন। সব সময় চেষ্টা করবেন ট্রেন ছাড়ার ৩০ মিনিট আগে এসে রেলস্টেশনে উপস্থিত থাকার জন্য। এমন বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কারণে ট্রেন ছাড়তে বিলম্বিত হয়। তাই অবশ্যই ধৈর্য সহকারে স্টেশনে ট্রেন ছাড়ার জন্য অপেক্ষা করবেন। যদি আমার এই পোস্টটি ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনারা শেয়ার করবেন।

Leave a Comment