মালদ্বীপ ভিসার দাম কত এবং বেতন কত ২০২৪

মালদ্বীপ ভিসার দাম কত, দক্ষিণ এশিয়ায় অবস্থিত ভারত মহাসাগরের একটি ছোট্ট দ্বীপ রাষ্ট্র হচ্ছে মালদ্বীপ। ১১৯৪টি ছোট ছোট দ্বীপ নিয়ে পুরো মালদ্বীপ দেশটি গঠিত অর্থাৎ এই দেশটি পুরোটাই ভারত মহাসাগরে অবস্থিত। সাগর অবস্থিত বিদায় মালদ্বীপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ভরা একটি দেশ।  তাই বাংলাদেশ সহ পুরো বিশ্বের মানুষ মালদ্বীপে বিভিন্ন কাজ জন্য যেয়ে থাকে। কিন্তু বেশিরভাগ মানুষ মালদ্বীপ যায় ভ্রমণের জন্য। তাই তারা জানতে চায় মালদ্বীপ ভিসার দাম কত।

আপনারা অনেকেই হয়তো জানেন মালদ্বীপের রাজধানীর নাম হচ্ছে মালে। অর্থাৎ মালদ্বীপের রাজধানী একটি দ্বীপে অবস্থিত। মালদ্বীপের প্রধান ইনকাম সোর্স হচ্ছে পর্যটক ব্যবসা তাই সেই দেশে বর্তমানে প্রচুর পরিমাণ হোটেল রেস্টুরেন্টের কাজ হচ্ছে। তাই বাংলাদেশ থেকে মালদ্বীপে প্রচুর পরিমাণ লোক যাচ্ছে। মালদ্বীপে যাওয়ার জন্য খুব একটা বেশি টাকা প্রয়োজন হয় না খুব অল্প টাকাতেই মালদ্বীপের ভিসা পাওয়া যায়। তাহলে দেখে নেওয়া যাক মালদ্বীপ ভিসার দাম কত টাকা বর্তমানে।

মালদ্বীপ ভিসার দাম কত

মালদ্বীপ ভিসার দাম কত, ভারত মহাসাগরের অবস্থিত মালদ্বীপ দেশটি শ্রীলংকা হতে আনুমান আনুমানিক ৪০১ মাইল দক্ষিণ পশ্চিমে ১১৯৪টি প্রবাল দ্বীপ নিয়ে গঠিত। আর এই দ্বীপকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন দেশ থেকে মালদ্বীপে ভ্রমণে আসে। তাই পর্যটকদের জন্য ভালো মানের হোটেল এবং রেস্টুরেন্ট তৈরির জন্য বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে প্রচুর পরিমাণ প্রবাসী মালদ্বীপে যেয়ে থাকে।

তবে শুধুমাত্র ভারতীয় নাগরিকদের জন্য ৩০ থেকে ৬০ দিন পর্যন্ত কোন রকম ভিসা ছাড়াই মালদ্বীপে অবস্থান করতে পারে। অর্থাৎ ভারতীয় নাগরিকগণ ৩০ থেকে ৬০ দিন শুধুমাত্র পাসপোর্ট দেখিয়ে সেখানে অবস্থান করতে পারে। কিন্তু বাংলাদেশিদের জন্য এরকম কোন সুযোগ সুবিধা নেই তাই বাংলাদেশীদের অবশ্যই মালদ্বীপের ভিসা করে সেই দেশে প্রবেশ করতে হবে। আপনারা নিম্নলিখিত আর্টিকেল থেকে জেনে নিন মালদ্বীপ ভিসার দাম কত ?

মালদ্বীপ
মালদ্বীপ

মালদ্বীপ যেতে কত টাকা লাগে

আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে মালদ্বীপের টুরিস্ট ভিসাতে যেতে চান তাহলে খুব বেশি টাকা খরচ পড়বে না। কিন্তু আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে কাজের উদ্দেশ্যে মালদ্বীপে যেতে চান তাহলে অনেক টাকায় খরচ হবে। বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে মাল দিবে টুরিস্ট ভিসা যেতে চাইলে ১ লক্ষ টাকা থেকে ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত খরচ হয়। এবং আপনি যদি দালালের মাধ্যমে মালদ্বীপের ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে প্রবেশ করেন তাহলে আপনার খরচ পড়বে ৩ লক্ষ টাকা থেকে ১৪ লক্ষ টাকা পর্যন্ত।

যদি আপনি শ্রমিক হিসেবে মালদ্বীপে প্রবেশ করেন তাহলে ৩ লক্ষ টাকা থেকে ৪ লক্ষ টাকা পর্যন্ত মালদ্বীপের ভিসার দাম পরে। কিন্তু আপনি যদি হোটেলের ভিসায় যান তাহলে আপনার খরচ পড়বে ১০ লক্ষ টাকা থেকে ১৪ লক্ষ টাকা পর্যন্ত। কারণ মালদ্বীপে হোটেলের ভিসায় আপনি প্রতি মাসে ৮০ থেকে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করা যায়। অর্থাৎ হোটেলের ভিসার দাম বেশি তাই আপনার ইনকাম বেশি হবে। তাহলে আমরা জানতে পারলাম মালদ্বীপে ভিসার দাম হচ্ছে ৩ লক্ষ টাকা থেকে ১৪ লক্ষ টাকা পর্যন্ত।

মালদ্বীপ যেতে কি কি ডকুমেন্ট লাগে

যদি আপনি কোন দেশ ভ্রমণ বা কাজের উদ্দেশ্যে যেতে চান তাহলে অবশ্যই আপনার কিছু ব্যক্তিগত বিভিন্ন কাগজপত্র প্রয়োজন হবে। আর অবশ্যই আপনার বাংলাদেশী বৈদ্য পরিচয় পত্র এবং পাসপোর্ট প্রয়োজন হবে। আর যে কোন দেশের ভিসা পাওয়ার আগে আরো কিছু কাগজপত্র প্রয়োজন হয় যেগুলো অনেকেই জানেন না।  তাই আপনারা নিম্নে লিখিত কাগজপত্রগুলো ভিসা আবেদনের আগে অবশ্যই জমা করবেন।

  • বৈধ সর্বনিম্ন ৬ মাসের পাসপোর্ট থাকতে হবে।
  •  জাতীয় পরিচয় পত্রের প্রয়োজন হবে
  • জন্ম নিবন্ধন কার্ডের অরজিনাল কপি।
  • পাসপোর্ট সাইজের কয়েক কপি ছবি।
  • মেডিকেল রিপোর্ট অবশ্যই লাগবে।
  • পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট লাগবে।
  • ভিসা তৈরির ফরম জমা দিতে হবে।
  • কাজের অভিজ্ঞতা সার্টিফিকেট।
  • ব্যাংক স্টেটমেন্ট টুরিস্ট ভিসার জন্য।
  • করোনা ভ্যাকসিনের সার্টিফিকেট।

মালদ্বীপ কাজের ভিসা দাম কত

আপনারা যারা বাংলাদেশ থেকে মালদ্বীপে কাজের বিষয় যাবেন তারা অনেকেই জানতে চান মালদ্বীপে কাজের ভিসার দাম কত? যদি আপনার সর্বনিম্ন ছয় মাসের বৈধ একটি পাসপোর্ট থাকে তাহলে আপনি মালদ্বীপে কাজের ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন মালদ্বীপ সরকার আপনাকে দুই বছর চার বছর এবং ৬ বছর মেয়াদী ওয়ার্ক পারমিট ভিসা দিয়ে দিবে। এক্ষেত্রে আপনার মালদ্বীপে পৌঁছাতে সর্বমোট খরচ হবে ৩ লক্ষ টাকা থেকে ৪ লক্ষ টাকা পর্যন্ত।

আরও পড়ুনঃ বাংলাদেশ থেকে মালদ্বীপ বিমান ভাড়া

মালদ্বীপ টুরিস্ট ভিসা দাম কত

মালদ্বীপ একটি প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরা দেশ তাই বাংলাদেশ থেকে প্রতি বছর হাজার হাজার পর্যটক মাল দিবে টুরিস্ট ভিসা যেয়ে থাকে। অনেকেই জানেন না মালদ্বীপের টুরিস্ট ভিসার দাম কত বর্তমানে মালদ্বীপের টুরিস্ট ভিসার জন্য আপনাকে খরচ করতে হবে ১৫ হাজার ৫০০ টাকা থেকে ১৭ হাজার ৫০০ টাকা পর্যন্ত। সে ক্ষেত্রে মালদ্বীপ সরকার আপনাকে ৯০ দিনের জন্য টুরিস্ট ভিসা প্রদান করবে। আপনি যদি ৩ থেকে ৭ দিন পর্যন্ত টুরিস্ট ভিসা অবস্থান করেন তাহলে আপনার সর্বমোট খরচ হবে ১ লক্ষ টাকা থেকে ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত।

মালদ্বীপ কাজের বেতন কত

আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে মালদ্বীপে গিয়ে কর্মসংস্থান করতে চান তাহলে মোটামুটি প্রতি মাসে ভাল একটি এমাউন্ট ইনকাম করতে পারবেন। কারণ বর্তমানে মালদ্বীপে প্রচুর পরিমাণ বাংলাদেশিদের চাহিদা রয়েছে। তাই অনেকেই বাংলাদেশ থেকে মালদ্বীপে কাজের উদ্দেশ্যে গিয়ে থাকে কিন্তু তারা জানে না মালদ্বীপে কাজের বেতন কত টাকা।

আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে মালদ্বীপে গিয়ে শ্রমিকের কাজ করেন তাহলে প্রতি মাসে বাংলাদেশি টাকায় ৩৫ থেকে ৪৫ হাজার টাকা বেতন পাবেন। কিন্তু আপনার এই বেতনের মধ্যেই থাকা খাওয়া থাকবে তাই আপনি প্রতি মাসে মালদ্বীপ থেকে বাংলাদেশে ২০ থেকে ৩০ হাজার টাকা পাঠাতে পারবেন।

যদি আপনি বাংলাদেশ থেকে মালদ্বীপের স্টুডেন্টদের ভিসা যেতে পারেন তাহলে আপনি মাসে ৮০ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবেন। কিন্তু রেস্টুরেন্ট ভিসায় যেতে হলে আপনার ১০ থেকে ১৪ লক্ষ টাকা খরচ করতে হবে। মালদ্বীপে অন্যান্য ভিসার থেকে রেস্টুরেন্ট ভিসার অনেক সুযোগ সুবিধা তাই আপনারা যারা বাংলাদেশ থেকে মালদ্বীপে যেতে যাচ্ছেন তারা রেস্টুরেন্ট ভিসায় যেতে পারেন। মালদ্বীপ যেতে কত টাকা লাগে

সর্বশেষ কথাঃ

আজকের এই আর্টিকেলে আপনারা জানতে পেরেছেন মালদ্বীপ ভিসার দাম কত টাকা এবং মালদ্বীপ যেতে কত টাকা লাগে। আরো জানতে পেরেছেন মালদ্বীপে কাজের বেতন কত টাকা এবং বর্তমানে মালদ্বীপে যেতে কি কি ডকুমেন্টস লাগে। যদি আমার এই আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনাদের বন্ধু-বান্ধব আত্মীয়-স্বজনের সাথে শেয়ার করবেন এবং আমার ওয়েবসাইটে প্রতিদিন ভিজিট করবেন।

2 thoughts on “মালদ্বীপ ভিসার দাম কত এবং বেতন কত ২০২৪”

  1. ধন্যবাদ ভাই আমাদেরকে তথ্য দিয়ে আপনি মালদ্বীপের অবস্থা সম্পর্কে জানানোর জন্য এবং খরচ সম্পর্কে জানানোর জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ আরেকটু বিষয় হলো বা এখন আমি যেতে চাই এখন কত টাকা খরচ হবে হোটেল ভিসায় গেলে একবারে আর এটা কি গ্যারান্টি নাকি?

    Reply

Leave a Comment