মালয়েশিয়া যেতে কত টাকা লাগবে ২০২৪

বাংলাদেশ থেকে কাজের উদ্দেশ্যে অনেক প্রবাসী মালয়েশিয়া যেয়ে থাকে, তাই আপনাকে অবশ্যই জানতে হবে বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়া কাজের উদ্দেশ্যে যেতে কত টাকা লাগে। বর্তমানে মালয়েশিয়া শ্রমবাজার চালু আছে তাই বাংলাদেশ থেকে প্রচুর পরিমাণ লোক মালয়েশিয়ার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমাচ্ছে। আজকে আমার পোস্টের মাধ্যমে আপনারা জানতে পারবেন মালয়েশিয়া যেতে কত টাকা লাগবে।

বাংলাদেশ সরকারের সাথে মালয়েশিয়া সরকার একটি চুক্তি করেছে যে চুক্তির ফলে খুব অল্প টাকায় বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়া যাওয়া যাবে। সরকার নির্দিষ্ট একটি ফ্রি দিয়ে বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়া কাজের ভিসাতে যাওয়া যাচ্ছে। তাই আপনাদের জানতে হবে সরকার নির্ধারিত কত টাকা দিয়ে মালয়েশিয়া যাওয়া যায়। আজকের আর্টিকেলে জানতে পারবেন মালয়েশিয়া যেতে কত টাকা লাগবে।

মালয়েশিয়া যেতে কত টাকা লাগবে

মালয়েশিয়া যেতে কত টাকা লাগবে, বাংলাদেশ থেকে যদি কোন কর্মী মালয়েশিয়া যেতে চায় তাহলে তার সরকার নির্ধারিত ফি হলো ৭৮ হাজার ৯৯০ টাকা মাত্র। কিন্তু বর্তমানে প্রচুর চাহিদার কারণে ০৪ লক্ষ টাকা থেকে ০৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত খরচ হচ্ছে। মালয়েশিয়ায় সরকার বাংলাদেশ থেকে সবচাইতে বেশি প্রবাসী নিচ্ছে পাম বাগানে কাজ করানোর উদ্দেশ্যে।

বর্তমানে পাম বাগানে একজন শ্রমিক নিয়োগ দিলে বাংলাদেশ থেকে সেই শ্রমিকের ০৪  লক্ষ থেকে ০৪ লক্ষ ৫০ হাজার পর্যন্ত টাকা খরচ হয়। এবং ফ্যাক্টরির  ভিসাতে একটু বেশি টাকা লাগে তাই বর্তমানে ৫ লক্ষ থেকে ৫ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত ফ্যাক্টরির ভিসাতে খরচ হয়ে থাকে। তাই আপনারা এজেন্সির সাথে আলোচনা করে যত কম টাকায় মালয়েশিয়া যেতে পারেন ততই ভালো।

বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়া যেতে কত টাকা লাগে

বাংলাদেশ সরকারের সাথে মালয়েশিয়া সরকার একটি চুক্তি করেছে চুক্তি অনুযায়ী বাংলাদেশ থেকে প্রতিটি শ্রমিক নিতে সেই দেশের সরকার বিমান ভাড়া থেকে শুরু করে ভিসার সমস্ত টাকা নিয়োগকৃত কোম্পানি বহন করবে। আর বাংলাদেশের একজন শ্রমিকের পাসপোর্ট থেকে শুরু করে মেডিকেল যাবতীয় খরচ দিয়ে ৭৮ হাজার ৯০০ টাকা সর্বমোট খরচ হবে।

একজন শ্রমিকের সরকারিভাবে মালয়েশিয়া যেতে খরচ হচ্ছে ৭৮ হাজার ৯৯০ টাকা। কিন্তু একজন শ্রমিকের ০৪ লক্ষ টাকা থেকে ০৫ লক্ষ টাকা খরচ হয় মালয়েশিয়া যেতে।

মালয়েশিয়ার ভিসার দাম কত

বাংলাদেশ থেকে বর্তমানে মালয়েশিয়া যেতে হলে বেসরকারিভাবে একটি ভিসার দাম ৪ লক্ষ টাকা থেকে ৫ লক্ষ টাকা। মালয়েশিয়া কৃষি কাজের ভিসার দাম হচ্ছে ০৪ লক্ষ টাকা এবং বিভিন্ন ফ্যাক্টরিতে ০৫ লক্ষ টাকার উপরে বর্তমানে ভিসার দাম কিন্তু সরকারিভাবে যদি যেতে পারেন তাহলে মাত্র ৭৮ হাজার ৯০০ টাকা খরচ হবে।

মালয়েশিয়া টুরিস্ট ভিসায় যেতে কত টাকা লাগে

বাংলাদেশ থেকে প্রচুর পরিমাণ টুরিস্ট মালয়েশিয়া ভ্রমণের উদ্দেশ্যে যায় সেই জন্য মালয়েশিয়ান সরকার বাংলাদেশের জন্য খুব অল্প টাকাতে টুরিস্ট ভিসা চালু করেছে। মালয়েশিয়াতে বাংলাদেশ থেকে টুরিস্ট ভিসার জন্য আবেদন করতে মাত্র ৫ হাজার ৮০০ টাকা লাগে। সাথে আপনার বিমানের আপ ডাউন টিকিট ক্রয় করা থাকলে আপনি খুব সহজেই তিন মাস মালয়েশিয়া টুরিস্ট হিসেবে থাকতে পারবেন।

বাংলাদেশের বিভিন্ন টুরিস্ট কোম্পানি মালয়েশিয়ার জন্য বিভিন্ন প্যাকেজ দিয়ে থাকে সর্বনিম্ন ৫০ হাজার টাকা থেকে ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত টুরিস্ট কোম্পানিগুলো প্যাকেজ দিয়ে থাকে। যদি অল্প খরচে মালয়েশিয়া টুরিস্টের জন্য যেতে চান তাহলে অবশ্যই সবকিছু অনলাইনে করে নিবেন। বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়ার টুরিস্ট ভিসার জন্য মাত্র ৫ হাজার ৮০০ টাকা লাগে।

মালয়েশিয়া যেতে কত বয়স লাগে

বর্তমানে মালয়েশিয়া যেতে হলে ২২ থেকে ৪০ বছর বয়সে মালয়েশিয়া কলিং ভিসা হয়ে থাকে। কিন্তু সকল কোম্পানি ২২ থেকে ৪০ বছর পর্যন্ত কলিং ভিসা দিয়ে থাকে না। কিছু কিছু কোম্পানি ২২ থেকে ২৫ বছর পর্যন্ত বাংলাদেশীদের নিয়োগ দিয়ে থাকে। শুধুমাত্র মালয়েশিয়াতে কৃষি কাজের ভিসা গুলোতে ১০ থেকে ৪০ বছর পর্যন্ত বয়সে নিয়োগ দিয়ে থাকে।

ইলেকট্রিক্যাল কাজের ক্ষেত্রে ২২ থেকে ২৫ বছর বয়সেই সাধারণত কোম্পানিগুলো নিয়োগ দিয়ে থাকে তাই আপনার বয়স যদি ২২ থেকে ২৫ এর মধ্যে হয় তাহলে অবশ্যই ইলেকট্রিক্যাল কাজ শিখে মালয়েশিয়া যাবেন কারণ মালয়েশিয়াতে প্রচুর ইলেকট্রিক্যাল কাজের চাহিদা।

আরও পড়ুনঃ

মালয়েশিয়া যেতে কোন টিকা লাগবে

বর্তমানে বাংলাদেশ করোনার তিনটি টিকা প্রচলিত আছে মর্ডানের টিকা সিনো ফার্মা টিকা এবং ফাইজার টিকা। মালয়েশিয়া সরকারি তিনটি টিকায় তাদের দেশের জন্য বৈধ করে দিয়েছেন। তাই আপনি যদি বাংলাদেশে এই তিনটি টিকার মধ্যে যে কোন একটি টিকার দুটি ডোজ কমপ্লিট করে থাকেন তাহলে আপনি অবশ্যই মালয়েশিয়া যেতে পারবেন।

মালয়েশিয়া যেতে পাসপোর্ট এর মেয়াদ কতদিন লাগে

বর্তমানে বাংলাদেশ সরকার পাসপোর্ট এর মেয়াদ ২ ক্যাটাগরিতে রেখেছে একটি পাসপোর্ট এর মেয়াদ ০৫ বছরের জন্য এবং আরেকটি পাসপোর্ট এর মেয়াদ ১০ বছরের জন্য। তাই আপনাকে জানতে হবে মালয়েশিয়া যেতে পাসপোর্ট এর মেয়াদ কত দিন থাকা প্রয়োজন।

মালয়েশিয়া যেতে একটি পাসপোর্ট এর মেয়াদ নূন্যতম ০১ বছর থাকা লাগে। কারণ মালয়েশিয়া ভিসা প্রসেসিং বর্তমানে একটু সময় সাপেক্ষ এর ব্যাপার। তাই আপনার পাসপোর্ট এর মেয়াদ ১ বছরের বেশি থাকলে ভালো হয়। আপনাদের উদ্দেশ্যে একটি কথা বলব যখন আপনি পাসপোর্ট তৈরি করবেন অবশ্যই ১০ বছর এর মেয়াদি একটি পাসপোর্ট তৈরি করে নিবেন।

প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে কিছু কথাঃ

বর্তমানে বাংলাদেশ সরকার নির্ধারিত মূল্যতে মালয়েশিয়া যাওয়া যায় না। মালয়েশিয়ার ভিসার প্রচুর চাহিদার কারণে ভিসা কোম্পানিগুলো দাম বৃদ্ধি করেছে। অবশ্যই আপনি ভালো এজেন্সি দেখে মালয়েশিয়ার জন্য পাসপোর্ট জমা দিবেন। আপনাদের উদ্দেশ্যে আমাদের পক্ষ থেকে একটি কথাই বলবো আপনারা যখন মালয়েশিয়া যাবেন, তখন অবশ্যই মালয়েশিয়ার আইন-কানুন মেনে চলবেন এবং বাংলাদেশের মুখ বিশ্ব দরবারে উজ্জ্বল করবেন। আশা করি আজকের পোষ্টের মাধ্যমে আপনারা জানতে পেরেছেন মালয়েশিয়া যেতে কত টাকা লাগবে এবং মালয়েশিয়া যেতে কত বয়স লাগে।

Leave a Comment