ইতালিতে বেতন কত | ইতালিতে বাংলাদেশিদের বেতন কত ২০২৪

ইতালিতে বেতন কত | ইতালিতে বাংলাদেশিদের বেতন কত, বাংলাদেশ থেকে আপনারা যারা ইতালিতে বৈধভাবে যেতে চান তাদের মনে একটি প্রশ্ন থাকে। বৈধভাবে ইতালিতে প্রবেশ করলে বাংলাদেশীদের ইতালিতে বেতন কত হবে? তাই সকল বাংলাদেশী আপনারা বাংলাদেশ থেকে বৈধভাবে ইতালিতে যেতে চাচ্ছেন তাদের জন্যই ইতালিতে বেতন কত এই বিষয়ে লেখা। এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে আপনারা জানতে পারবেন ইতালিতে বেতন কত | ইতালিতে বাংলাদেশীদের বেতন কত?

আপনি যদি বৈধভাবে বাংলাদেশ থেকে ইতালিতে প্রবেশ করেন তাহলে আপনার সর্বনিম্ন কাজের বেতন হবে বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৮০,০০০ হাজার টাকা। যদি আপনি বাংলাদেশ থেকে বা অন্য কোন মাধ্যমে ইতালিতে অবৈধভাবে প্রবেশ করেন তাহলে আপনার বেতনের পরিমাণ অনেক কম হবে। এছাড়া আপনি অন্যদের থেকে কম সুযোগ সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। তাই আপনাদের অবশ্যই জানতে হবে ইতালিতে বেতন কত এবং সুযোগ-সুবিধা কেমন।

ইতালিতে বেতন কত

আপনারা যেহেতু ইতালিতে বেতন কত এই বিষয়ে জানতে চাচ্ছেন। তাই আপনাকে আপনাদের একটি কথা মাথায় রাখতে হবে। ইতালিতে বেতন কত টাকা হবে সেই বিষয়টি নির্ভর করবে আপনার কাজের দক্ষতার উপর।  আপনি যত ভাল কাজ করতে পারবেন আপনার বেতন তথ্য বেশি হবে।

আপনি যখন বাংলাদেশ থেকে ইতালিতে প্রবেশ করবেন তখন ইতালি সরকার প্রতিটি বাংলাদেশীদের জন্য সর্বনিম্ন একটি বেতন স্কেল চালু রেখেছে।  যে বেতন স্কেলে বাংলাদেশিরা সর্বনিম্ন ৮০ হাজার টাকা বেতন পেয়ে থাকে। অবশ্যই আপনাকে বৈধভাবে ইতালিতে প্রবেশ করতে হবে তাহলেই আপনি ৮০ হাজার টাকা সর্বনিম্ন বেতন পাবেন।

  1. যদি একজন বাংলাদেশী মানুষ বৈধভাবে ইতালিতে প্রবেশ করে তখন তার ভিন্ন ভিন্ন কাজের উপরে বিভিন্ন রকম বেতন পেয়ে থাকে যেমন।
  2. বাংলাদেশ থেকে বৈধভাবে ইতালিতে যদি আপনি রেস্টুরেন্ট কর্মী হিসেবে কাজে যোগদান করেন তাহলে আপনার মাসিক বেতন হবে সর্বনিম্ন ৮০,০০০ হাজার টাকা।
  3. আপনি যদি ড্রাইভিং ভিসা নিয়ে ইতালিতে কাজের উদ্দেশ্যে প্রবেশ করেন তাহলে আপনার সর্বনিম্ন বেতন হবে (১০০,০০০) এক লাখ টাকার বেশি।
  4. বাংলাদেশ থেকে যদি ইতালিতে কনস্ট্রাকশন কাজের উদ্দেশ্যে যান তাহলে আপনার বেতন হবে সর্বনিম্ন ৮০,০০০ হাজার টাকা এবং কাজের পারফরম্যান্সের উপরে বেতন দিন দিন বৃদ্ধি পাবে।
  5. বৈধভাবে ইতালিতে যাবার পরে আপনি যদি ফুড প্যাকেজিং এবং এর কাজ করেন তাহলে আপনি ইতালি সরকার এর বেতন স্কেল অনুযায়ী বেতন পাবেন মাত্র ৬০-৭০ হাজার  টাকা।
  6. আপনি যদি ইতালিতে কৃষি কাজ করেন তাহলে আপনার বেতন হবে ৮০ হাজার টাকা ওভার টাইম করলে আপনার বেতন আরো বৃদ্ধি পাবে।

উপরে প্রকাশিত তালিকা অনুযায়ী আপনার বিভিন্ন কাজের উপর ভিত্তি করে ইতালির সর্বনিম্ন বেতন কত সেটি দেখানো হলো। তবে আপনি কত টাকা বেতন পাবেন সেটি নির্ভর করছে আপনার কাজের দক্ষতার উপর।

ইতালি

ইতালিতে বাংলাদেশিদের বেতন কত

বর্তমানে বাংলাদেশীদের জন্য ইতালিতে দুই প্রকার ভিসা চালু আছে একটি হচ্ছে সিজেনাল এবং অপরটি হচ্ছে নন  সিজেনাল। তাই ইতালিতে বাংলাদেশিদের বেতন কত টাকা হবে তা নির্ভর করবে আপনি কোন ভিসায় ইতালিতে যাবেন।

আপনি যদি সিজেনাল ভিসাতে ইতালিতে প্রবেশ করেন তাহলে আপনার মাসে সর্বনিম্ন বেতন হবে (১০০,০০০) এক লাখ টাকার বেশি। আর যদি আপনি বৈধ ভাবে ইতালিতে নন সিজনাল ভিসাতে প্রবেশ করে থাকেন তাহলে আপনার মাসে বেতন হবে সর্বনিম্ন ৮০,০০০ হাজার টাকা।

ইতালি

ইতালিতে শ্রমিকদের বেতন

সাধারণত ইতালিতে শ্রমিকদের বেতন বিভিন্ন পেশার উপর ভিত্তি করে হয়ে থাকে। বর্তমানে ইতালি সরকারের নিয়ম অনুযায়ী একজন শ্রমিকের সর্বনিম্ন বেতন হচ্ছে বাংলাদেশি টাকায় ৮০ হাজার টাকা। তাই যে সকল ভিজিটরগণ ইতালিতে শ্রমিকদের বেতন কত এই বিষয়ে জানতে চাচ্ছেন তারা অবশ্যই নিচের লিস্ট অনুযায়ী বেতন দেখে নিন।

ইতালিতে শ্রমিকদের বেতন লিস্ট

ক্রমিক নং

কাজের শ্রেণী

কাজের বেতন

০১

কৃষি-কাজ

প্রায় ৮০-৯০ হাজার টাকা

০২

মেকানিক্যাল কাজের

প্রায় ০১ লাখ টাকার বেশি

০৩

ক্লিনিং ম্যানের কাজের

প্রায় ৬০-৭০ হাজার টাকা

০৪

কনস্ট্রাকশনের কাজের

প্রায় ৮০-৯০ হাজার টাকা

০৫

ফুড প্যাকেজিং এর কাজ

প্রায় ৬০-৭০ হাজার টাকা

০৬

হোটেল কর্মী / রেস্টুরেন্ট কর্মী

প্রায় ৮০-৯০ হাজার টাকা

০৭

ড্রাইভিং ভিসা এর কাজ

প্রায় ০১ লাখ টাকার বেশি

ইতালিতে কোন কাজের চাহিদা বেশি

বর্তমানে ইতালিতে শ্রমিক সংকট থাকার কারণে ইতালি সরকার আগামী চার বছরে ইউরোপীয় ইউনিয়ন ভুক্ত দেশগুলোর বাহিরে থেকে চার থেকে পাঁচ লক্ষ শ্রমিক নিয়োগ দিবে। বর্তমানে বাংলাদেশীদের মনে একটি প্রশ্ন থাকে ইতালিতে কোন কাজের চাহিদা বেশি?

বর্তমানে ইতালিতে সবচাইতে কাজের চাহিদা বেশি হচ্ছে রেস্টুরেন্টের কাজে। ইতালির মানুষজন সাধারণত রেস্টুরেন্টের খাবার বেশি খায় তাই ইতালিতে সবচাইতে বেশি রেস্টুরেন্টের কাজের শ্রমিক প্রয়োজন হয়। তাই ইতালিতে অন্য কাজের চাহিদার থেকে রেস্টুরেন্টের কাছে কাজের চাহিদা সবচাইতে বেশি।

এছাড়া বর্তমানে ইতালিতে বিভিন্ন কাজের উপরে প্রচুর চাহিদা তৈরি হচ্ছে। যদি আপনি এই কাজের উপরে দক্ষ হয়ে থাকেন তাহলে খুব সহজে ইতালিতে বৈধভাবে ভিসা পেয়ে যাবেন। তাই বর্তমানে ইতালিতে কোন কাজের উপরে সবচাইতে বেশি চাহিদা তার একটি লিস্ট নিচে দেওয়া হল।

  • ড্রাইভিং এর কাজ।
  • কৃষি ভিসার কাজ।
  • পাইপ ফিটিং এর কাজ।
  • ওয়েল্ডিং মিস্ত্রি এর কাজ।
  • ইলেকট্রিশিয়ান এর কাজ।
  • মেকানিক্যাল সাইডের কাজ।
  • ইলেকট্রনিক্স দোকানের কাজ।
  • কনস্ট্রাকশন কোম্পানির কাজ।
  • ক্লিনিং ও পরিচ্ছন্ন কর্মীর কাজ।
  • ফুট প্যাকেজিং কোম্পানির কাজ।

প্রিয় ভিজিটরগণ আপনারা দেখতেই পাচ্ছেন বর্তমানে ইতালিতে কোন কাজের সবচাইতে চাহিদা বেশি। উপরের লিস্ট ছাড়াও বর্তমানে ইতালিতে সবচাইতে বেশি চাহিদার কাজ হচ্ছে রেস্টুরেন্ট কর্মীর কাজ। একজন অভিজ্ঞ রেস্টুরেন্ট কর্মীর ইতালিতে প্রচুর ডিমান্ড তাই বাংলাদেশ থেকে যারা ইতালিতে বৈধ পথে যেতে চাচ্ছেন তারা অবশ্যই রেস্টুরেন্টের কাজ শিখে ইটালিতে যাবেন।

আরও পড়ুনঃ

ইতালি সর্বনিম্ন বেতন কত

আপনি ইতালিতে কোন ভিসায় প্রবেশ করবেন তার ওপরে ভিত্তি করে আপনার সর্বনিম্ন বেতন হবে। আপনি যদি শ্রমিক ভিসাতে ইতালিতে প্রবেশ করেন তাহলে আপনার সর্বনিম্ন বেতন হবে ৮০ হাজার টাকা। ইতালি সরকারের নিয়ম অনুযায়ী একজন শ্রমিকের সর্বনিম্ন বেতন হচ্ছে ৮০০ ইউরো যা বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ৮০ হাজার টাকা। itali

কিন্তু আপনি যদি ফুড প্যাকেজিং বা ক্লিন ম্যানের ভিসাতে ইতালিতে প্রবেশ করেন তাহলে আপনি সর্বনিম্ন বেতন পাবেন বাংলাদেশি ৬০ হাজার টাকা। কারণ কোম্পানির কাজে পরিশ্রম কম তাই বেতন কম। তাই আপনারা যদি বেশি বেতনে ইতালিতে যেতে চান তাহলে অবশ্যই ড্রাইভিং লাইসেন্স করে ড্রাইভিং ভিসাতে যাবে বর্তমানে ইতালিতে সবচাইতে বেশি বেতন ড্রাইভিং ভিসাতে।

Leave a Comment